আজ ৯ আষাঢ়, ১৪২৮, ২৩ জুন, ২০২১

আশুলিয়ার ভাদাইলে ছেলে কর্তৃক অসহায় মাকে মারপিটের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ ঢাকার প্রধান শিল্পাঞ্চল আশুলিয়ার ধামসোনা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ড ভাদাইল মধ্যপাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পাশে এক ছেলে কর্তৃক তার মাকে মারপিট করার অভিযোগ উঠেছে।

১৫ এপ্রিল ২০২০ ইং এ ব্যাপারে অভিযোগকারী ওই মা মোছাঃ জায়েদা খাতুন (৬০) বলেন, আমার বড় ছেলে মোঃ জয়নাল আবেদীন (৪২) কে বাড়ির জমি লিখে দেয়ার পর থেকে আমার স্বামী মোঃ আজগর আলী (৭০) অসুস্থ্য হয়ে পড়েছেন, আমার স্বামীর ওষুধ কিনে দেয়না ছেলেরা, ভাত কাপড়ও দেয় না তারা, এসব কথাবার্তা তুললেই আমাদেরকে মারপিট করে বড় ছেলে। এ ব্যাপারে আমার ছোট ছেলে মোঃ আয়নাল হোসেন কিছু বললে তাকেও বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়। তিনি বলেন, গত ১৪ এপ্রিল পহেলা বৈশাখ এর দিন সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আমার বড় ছেলে আগের মতো আমাকে মারপিট করেছে, ঘরে অসুস্থ্য মানুষ জয়নালের বাবা তাকেও গালাগালি করেছে, বাড়িতে মেহমান আসছে ছোট ছেলের খালা শাশুড়ি রেশমা, তার সাথেও খারাপ ব্যবহার করছে এবং শরীরে হাত দিয়েছে, তিনি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, আমি মা ৬ ছেলে, দুই মেয়ে জন্ম দিয়ে ভুল করেছি, তাই ছেলেরা আমাকে মায়ের মর্যাদা না দিয়ে উল্টো মারপিট করে, আমি এই বড় ছেলে জয়নালের অপরাধের বিচার চাই।

এ বিষয়ে জায়েদা খাতুনের ছোট ছেলে মোঃ আয়নাল হোসেন বলেন, আমার বাবা মায়ের ছোট ছেলে আমি আর ভাই বোনদের মধ্যে ছোট হলেও বড়রা আমাকে অনেক দুঃখ কষ্ট দিয়েছেন, যা আমি ভাষায় বুঝাতে পারবো না, বাবা সবাইকে ৭ শতক করে বাড়ির জমি দিয়েছেন কিন্তু আমার জমির উপর বড় ভাই জয়নাল ঠেলাঠেলি করে এখন মনে হয় ৫ শতক জমি টিকতে পারে। আমার বড় ভাইদের আদর ভালোবাসা না পেয়ে শুধু আঘাত পেয়েছি আমি। তিনি আরও বলেন, আমার বড় ভাই জয়নাল ও মহসিন ভাই আমাকে মেরে ফেলবে বলে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়েছেন।

এ ব্যাপারে আমি আশুলিয়া থানায় জিডি করেছি, জিডি নং ২৭১১, তারিখঃ ৩১/১২/২০১৯ইং। আয়নাল আরও বলেন, আমার বাবা ও মা, দুইজনই খুব ভালো মানুষ, তারা বেঁচে থাকা অবস্থায় ছেলে মেয়েদেরকে সঠিকভাবে জমি ভাগ করে দান করেছেন। আমার বাবা একজন হাজী, অনেকদিন ধরে অসুস্থ্য হয়ে আছেন, বাবা কথা বলতে পারেন না, এরপর যদি আমরা মা বাবাকে ভাত কাপড় না দিয়ে উল্টো মারপিট করি এটা অমানবিক কিন্তু আমার বড় ভাই মাকে মারপিট করেন এবং কেউ প্রতিবাদ করলে তাকেও মারপিট করাসহ হুমকি দেয়, আমি যদি কোনো ভুল করি তারা আমার মারতে পারেন কিন্তু মাকে কেন মারবে? থানা পুলিশ ও কোনো সাংবাদিকই জয়নাল ভাইকে কিছুই করতে পারবে না বলে সে জানিয়েছেন, আমি এর সঠিক বিচার চাই।

সরেজমিনে ঘটনাস্থলে গিয়ে জায়েদা খাতুনের বড় ছেলে জয়নাল আবেদীনকে পাওয়া যায়নি, এর কারণে তার বক্তব্য দেয়া সম্ভব হয়নি।

স্থানীয়রা জানান, জয়নাল তার মাকে মারপিট করে অন্যায় করেছেন, পারিবারিক ভাবে নিজেদের ভাই বোনের মধ্যে জগড়া বিবাদ হতে পারে কিন্তু মা বাবাকে মারপিট করা বড় অপরাধ। অনেকেই বলেন, এখন করোনা ভাইরাস মহামারিতে পরিণত হয়েছে, কার, কখন কি হবে একমাত্র আল্লাহ জানেন, যারা জন্মদাতা পিতা মাতাকে মর্যাদা না দিয়ে উল্টো মারপিট করে এদেরকে আল্লাহ ক্ষমা করবেন না বলে অনেকেই জানান।

এ ব্যাপারে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সাংবাদিক সংস্থার ঢাকা জেলা উত্তর এর সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাইফুল ইসলাম হেলাল শেখ বলেন, ছেলে হয়ে বাবা মাকে মারপিট করা এটা বড় অপরাধ ও মানবাধিকার লঙ্ঘন করা। যে মা ১০ মাস ১০দিন গর্বে রেখে জন্ম দেন একটি সন্তান, আর সেই সন্তান যদি সেই মাকে আঘাত দেয় এই আঘাত সে নিজেও পাবেন। বর্তমান সময়ে করোনা ভাইরাস মহামারিতে বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ জীবন বাঁচাতে লড়াই করছেন, ১ লাখেরও বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। বাংলাদেশেও প্রায় প্রতিদিন ৪-৫ জন মানুষের মৃত্যু হচ্ছে এই করোনা মহামারিতে, এমন সময়ে যদি কেউ মা বাবাকে আঘাত করেন, আল্লাহ জানেন তার কি অবস্থা হবে।

উক্ত ব্যাপারে আশুলিয়া থানা পুলিশ ও র‌্যাব-৪ এর সদস্য বলেন, কোনো ছেলে যদি তার মা বাবাকে ভাত কাপড় না দিয়ে তাদেরকে মারপিট করেন তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। র‌্যাব জানায়, বর্তমান সময় ও পরিস্থিতি ভালো না, করোনা ভাইরাস মহামারির কারণে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ সবাই বাঁচার জন্য লড়াই করছেন। এই অবস্থাতে

উক্ত বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সমাধান করতে না পারলে পরে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে র‌্যাবের এক কর্মকর্তা জানান। পর্ব ১।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর