বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০১:৪৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
শিরোনাম:
দুই ছেলে ও স্ত্রী’র পাশে সমাহিত করা হয়েছে ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়াকে গাইবান্ধায় ভুমিহীন ও গৃহহীনদের মধ্যে জমিসহ গৃহ হস্তান্তর গাইবান্ধায় স্কুল ছাত্রকে বস্তাবন্দি করে পানিতে চুবিয়ে হত্যা, তিন বন্ধু গ্রেফতার গাইবান্ধায় গৃহহীন ও ভূমিহীন মানুষদের ঘর বরাদ্দ উপলক্ষে জেলা প্রশাসকের প্রেস বিফ্রিং গাইবান্ধায় জেলা পরিষদের বৈদ্যুতিক পাখা বিতরণ পেঁয়াজ আমদানির ফলে কমেছে দাম ছেলে-বউয়ের নির্যাতনে ঘর ছাড়া বৃদ্ধা মা যমুনা গর্ভে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতল ভবন বিরাট দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে ফার্নিচার মেলা, খেলাধুলা বন্ধ সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে ঈদুল আজহা ৯ জুলাই

পুঠিয়ায় শ্লীলতাহানির অভিযোগ ঢাকতে ছিনতাইয়ের নাটক, অভিযুক্ত যুবক গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১১০ বার পঠিত
প্রকাশের সময়: বুধবার, ১২ ফেব্রুয়ারী, ২০২০, ৬:৪৪ অপরাহ্ন

পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ গৃহবধুকে বাড়িতে একা পেয়ে তাকে জাপটে ধরে বস্ত্রহরনের চেষ্টা করে লম্পট সুজন আলী (২৮)। এসময় গৃহবধুর আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা এসে তাকে রক্ষা করে লম্পট সুজন আলীকে গণধোলাই দিয়ে ছেড়ে দেয়। সেখান থেকে পালিয়ে এসে লম্পট সুজন আলী শ্লীলতাহানীর অভিযোগ থেকে বাঁচতে ছিনতাইয়ের নাটক সাজিয়ে ওই গৃহবধুর স্বামীকে আসামী করে থানায় ১ লক্ষ ৮ হাজার টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ করেন। তবে অভিযোগের তদন্তে গিয়ে উল্টো তাদের করা শ্লীলতাহানির অভিযোগে সুজন আলীকেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ।   

ঘটনাটি ঘটেছে গত (১১ ফেব্রুয়ারী) মঙ্গলবার বেলা ১১ টার দিকে রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার জিউপাড়া ইউনিয়নের বিলমাড়িয়া গ্রামে। একইদিন রাতে তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে । সুজন আলীকে শ্লীলতাহানির  মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে বুধবার সকালে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

লম্পট সুজন আলী (২৮) ওই গ্রামের আজিজ আলীর ছেলে এছাড়াও ভুক্তভোগী গৃহবধুও একই গ্রামের জনৈক ব্যক্তির স্ত্রী। সুজন আলী দীর্ঘদিন ধরেই ওই গৃহবধুকে উত্যক্ত করে আসছিলো। তবে ঘটনার দিন বাড়িতে একা পেয়ে তাকে জাপটে ধরে বস্ত্রহরণের চেষ্টা করে। তার বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী নারী বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়েরও করেছেন।

ভুক্তভোগী নারী জানান, একই গ্রামে বাড়ি হওয়ায় লম্পট সুজন দীর্ঘদিন ধরেই বিভিন্নভাবে তাকে উত্যাক্ত করে আসছিলো। ঘটনার দিন তার স্বামী কাজে যায় এসময় বাড়িতে কেও ছিলোনা। এই সুযোগে সুজন অনধিকার ভাবে তাদের বাড়িতে প্রবেশ করে আচমকা তাকে জাপটে ধরে তার বস্ত্রহরণের চেষ্টা করে। সে চিৎকার দিয়ে উঠলে প্রতিবেশিরা এগিয়ে এসে তাকে রক্ষা করে। এসময় সুজনকে তারা আটক করে মারধর করে ছেড়ে দিয়েছে বলেও জানান ভুক্তভোগী নারী।

থানা পুলিশ সুত্র জানায়, সুজন আলী থানায় এসে ওই গৃহবধুর স্বামীর বিরুদ্ধে তাকে মারধর করে ১ লক্ষ ৮ হাজার টাকা ছিন্তাইয়ের অভিযোগ দিয়ে যান। অন্যদিকে ভুক্তভোগী গৃহবধুও সুজনের বিরুদ্ধে থানায় শ্লীলতাহানির অভিযোগ করেন। দুটি অভিযোগেরই তদন্ত করেছেন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সাইফুল ইসলাম।

তিনি জানান, গৃহবধুর শ্লীলতাহানির ঘটনা ধামাচাপা দিতেই সুজন ছিন্তাইয়ের নাটক সাজিয়ে তার বিরুদ্ধে ১ লক্ষ ৮ হাজার টাকা ছিনতাইয়ের অভিযোগ করেন। অভিযোগের তদন্তে গিয়ে তার ছিনতাই হওয়া টাকার উৎস সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি একের পর এক মিথ্যা কথা বলেন। এক পর্যায়ে সে ছিনতাই  নাটকের অবসান ঘটিয়ে নারীর শ্লীলতাহানির কথা স্বীকার করেছেন। পরে তাকে শ্লীলতাহানির অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়।

পুঠিয়া থানার অতিরিক্ত ওসির দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হাসমত আলী জানান, এক নারীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে তাকে গ্রেফতারের পর বুধবার সকালে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

 


এ জাতীয় আরো খবর
এক ক্লিকে বিভাগের খবর